Institutional Quality Assurance Cell (IQAC)


খুবিতে ‘সিটিজেন চার্টার এন্ড জিআরএস-২’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ উদ্বোধন
#সুশাসন প্রতিষ্ঠায় মনস্তাত্ত্বিক পরিবর্তন ঘটাতে হবে : উপাচার্য
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি) এর উদ্যোগে আজ ২৭ জুন (সোমবার) ‘সিটিজেন চার্টার এন্ড গ্রিভেন্স রেড্রেস সিস্টেম (জিআরএস)-২’ শীর্ষক দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৯.১৫ মিনিটে ড. সত্যেন্দ্রনাথ বসু একাডেমিক ভবনের ইউআরপি লেকচার থিয়েটারে এ প্রশিক্ষণের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন।
তিনি বলেন, দুর্নীতিকে মোকাবেলা করে সর্বক্ষেত্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় মনস্তাত্ত্বিক পরিবর্তন ঘটাতে হবে। মূল্যায়ন হবে কাজের মাধ্যমে, কোনো পছন্দ-অপছন্দের মাধ্যমে নয়। নাহলে কোনো প্রতিষ্ঠান এগোতে পারবে না। তিনি বলেন, একটি দেশ কিংবা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার ক্ষেত্রে যথাযথভাবে আইন-কানুন সম্পর্কে জানতে হয়। নিজেদের অধিকার সম্পর্কে জানতে হয়।
তিনি আরও বলেন, কোনো এক সময় বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বলে ছোট করা হতো। সে দেশের মাথাপিছু আয় এখন ২৫শ’ ডলারের উপরে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেখানো পথে আমাদের দেশ চলছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা স্বপ্ন দেখছি ‘উন্নত বাংলাদেশ’ হওয়ার। সেলক্ষ্যেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।
উপাচার্য বলেন, দু’দিন আগে এ দেশের স্বাধীনতার পর সবচেয়ে বড় অর্জন স্বপ্নের পদ্মা সেতু চালু হয়েছে। এতো বড় মেগা প্রজেক্ট নির্মাণে বিদেশি প্রকৌশলীদের পাশাপাশি আমাদের দেশের প্রকৌশলী, ঠিকাদার, শ্রমিকরা কাজ করেছেন। এতে তাদের অভিজ্ঞতা বেড়েছে। সে অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আমরা আগামীতে নিজেরাই মেগা প্রজেক্টগুলোতে কাজ করতে পারবো। এজন্য আমাদের প্রতিনিয়ত শিখতে হবে। সময়ের সাথে সাথে আমাদের পরিবর্তন হতে হবে। কাজের সাথে নিজেদের মানিয়ে নিতে হবে।
তিনি আরও বলেন, আমাদের আর্থ-সামাজিক উন্নতি হচ্ছে। এখন আমাদেরও কিছু দিতে হবে দেশকে, জাতিকে। এজন্য নিজেদের কর্মদক্ষতা বাড়াতে হবে। কর্মজীবনে দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যম হচ্ছে প্রশিক্ষণ। আমরা দক্ষ হলে বিশ্ববিদ্যালয় এগিয়ে যাবে। সাথে দেশও এগিয়ে যাবে। কেননা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দক্ষ জনশক্তি তৈরি হয়। জাতি গঠনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা ব্যাপক।
উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিন ও রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. মো. শহিদুল ইসলাম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপ-সচিব মো. মখলেছুর রহমান।
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জিয়াউল হায়দারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ প্রশিক্ষণের উদ্বোধনপর্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর ড. মো. মতিউল ইসলাম।
প্রশিক্ষণে রিসোর্স পারসন হিসেবে ছিলেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. মো. শহিদুল ইসলাম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপ-সচিব মো. মখলেছুর রহমান, ইউআরপি ডিসিপ্লিনের সহকারী অধ্যাপক মাহমুদ উজ জামান এবং এপিএ’র ফোকালপার্সন উপ-রেজিস্ট্রার এস এম আবু নাসের ফারুক।
উদ্বোধনপর্ব সঞ্চালনা করেন আইকিউএসির উপ-রেজিস্ট্রার মোঃ নুরুল ইসলাম সিদ্দিকী। প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের পরিচালকসহ মোট ৬৩ জন কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করেন।
এদিকে বিকেল ৪.৩০ মিনিটে প্রশিক্ষণ কর্মসূচির সমাপনী অনুষ্ঠানে উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোসাম্মাৎ হোসনে আরা বিশেষ অতিথি হিসেবে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন এবং অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সনদপত্র বিতরণ করেন।